Thursday, November 26গণ মানুষের কথা বলে...

রংপুর নগরীর দুটি দোকানে দূর্ধষ চুরি; গ্রেফতার ৩

রিয়াজুল হক সাগর, রংপুর জেলা প্রতিনিধিঃ
রংপুর নগরীর দুটি দোকানে দূর্ধষ চুরির ঘটনায় পুলিশ ৩ চোরকে গ্রেফতার করেছে। এরা হলেন, নগরীর আমাশু কুকরুল এলাকার আব্দুল গফুর খোকনের ছেলে রবিউল ইসলাম ওরফে রুবেল (৩৪), মিঠাপুকুর বালারহাট কিসমতকাল এলাকার মৃত ফেলু মিয়ার ছেলে শফিকুল ইসলাম ওরফে কালা শফিকুল (৩৫) ও আজিজুল ইসলামের ছেলে মোঃ রায়হান (২৪)। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে রবিউল ইসলাম ওরফে রুবেল অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছে পুলিশ।
মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১২ নভেম্বর রাতে রংপুর নগরীর দেওয়ানবাড়ি রোডস্থ নেনিয়ান ভ্যারাইটি স্টোর ও গোমস্তপাড়া মোড়স্থ উত্তম স্টোরে দূর্ধষ চুরির ঘটনা ঘটে। দোকানের তালা ভেঙ্গে চুরি করে দোকানে থাকা কসমেটিকস্ আইটেম, বেবী ফুড, নগদ অর্থ, টিভি মনিটর, খাদ্য দ্রব্য, মোবাইল ফোনসহ দুই দোকানে দেড় লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি করে নেয় সংঘবদ্ধ চোরের দল। ১৩ নভেম্বর সকালে আশপাশের ব্যবসায়ীরা দোকানে তালা ভাঙ্গা দেখে দোকান মালিকদের খবর দেয়। দোকান মালিকরা নিজ প্রতিষ্ঠানে এসে চুরি যাওয়ার ঘটনা দেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে মেট্রোপলিটন কোতয়ালী থানা পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মেট্রোপলিটন কোতয়ালী থানার এসআই খাইরুল ইসলাম ঘটনার তদন্তসহ আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান পরিচালনা করেন। দোকানে থাকা সিসি টিভির ফুটেজ দেখে ১৩ নভেম্বর আসামী রুবেলকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে দুটি দোকানে চুরির কথা স্বীকার করে। এ সময় রুবেলের কাছ থেকে মোবাইল ফোনসহ চুরি যাওয়া কিছু মালামাল উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর রুবেলের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী নিজ বাড়ি থেকে কালা শফিকুলকে ও মিঠাপুকুর পুলিশের সহযোগিতায় বালারহাট বাজার থেকে গত শনিবার অপর আসামী রায়হানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা পুলিশের কাছে দুটি দোকানে চুরির করার বিষয়টি স্বীকার করে এবং তাদের কাছ থেকে চুরি যাওয়া মালামাল উদ্ধার করে পুলিশ।
এ ব্যাপারে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ্ কাওসার বলেন, দুটি দোকান দূধর্ষ চুরির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে মেট্রোপুলিশের সদস্যরা তাৎক্ষনিক ছুটে যায়। তথ্য প্রযুক্তি ও চৌকস কর্মকর্তাদের কর্মদক্ষতায় দ্রুত সময়ের মধ্যে আসামীদের গ্রেফতার ও মালামাল উদ্ধারে আমরা সক্ষম হয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *